বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স চাকরির সুবিধা এবং অসুবিধা | অভিজ্ঞ পাইলট এর মতামত ২০২২

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স চাকরির সুবিধা বা অসুবিধা সম্পর্কে যানতে চান? অথবা আপনার মনে কী  জানার আগ্রহ আছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স চাকরির বেতন কত? 

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স চাকরির সুবিধা

আজকে আপনাদের সাথে কয়েকজন অভিজ্ঞ পাইলটদের দেওয়া। বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স চাকরির সুবিধা এবং অসুবিধা নিয়ে মন্তব্য শেয়ার করবো। তাঁদের মতামত আপনাদের কর্ম জীবনে সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে সাহায্য করবে। কঠোর পরিশ্রম করে চাকরি নেওয়ার পর যেন পস্তাতে না হয়। আবার যদি আপনার যোগ্যতা থাকলেই বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স চাকরির সুবিধা উঠাতে পারবেন কীনা সকল বিষয় একদম পরিষ্কার হয়ে যাবে। 

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স চাকরির সুবিধা

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স চাকরির সুবিধা’র কোন শেষ নেই। বর্তমান সময়ে আমাদের দেশে সরকারী চাকরীকে সোনার হরীণের সাথে তুলনা করা হয়। বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স এমনি একটি সোনার খনির নাম। 

আপনি যদি স্নাতক পাশ করে থাকেন এবং চাকরির সন্ধান করছেন। তাহলে অবশ্যই বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স চাকরির চেষ্টা করা উচিত। আপনার সামাজিক যে আত্নসম্মান আছে তা আকাশ চুম্বী হয়ে যাবে। সেই সাথে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স এর প্রায় ছোট থেকে বড় প্রত্যেক পদেই রয়েছে আকর্ষণীয় বেতন । তাই এই চাকরি অপছন্দ হওয়ার কোণ প্রশ্নই উঠে না। 

যদি মনে সারা দুনিয়া ঘুরে দেখার ইচ্ছা থেকে থাকে, তাহলে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স এ চাকরি আপনার জন্য সোনালী সুযোগ তৈরি করে দিবে। 

এটা ছিল সাধারন সুবিধা। গভীরে যদি বলতে চাই, অন্যান্য সরকারি চাকরির সকল সুবিধা পাবেন। ৯ম গ্রেডের কর্মকর্তার সমমান হতে পারে আপনার সম্মাননা। সেই সাথে প্রমোশন বা পদোন্নতির সুযোগ রয়েছে। 

সহকারী ব্যবস্থাপক পদে নিয়োগকৃত একজন কর্মকর্তা ধীরে ধীরে মহা ব্যবস্থাপক পদে পদোন্নতি পেতে পারেন। পদোন্নতির পর সরকারী সেই প্রতিষ্ঠানের প্রধান হিসাবে দায়িত্ব পালন করতে পারেন।

চাকরি পাওয়ার পর নিজস্ব প্রতিষ্ঠান থেকে প্রশিক্ষন দিয়ে প্রস্তত করা হবে। প্রশিক্ষনের জন্য কয়েক বার দেশের বাইরেও যেতে হতে পারে। আরও কিছু সুবিধা হচ্ছে বেশির ভাগ ক্ষেত্রে কর্মচারীর থাকা খাওয়া, মেডিকেল সুবিধা, যানবাহন ইত্যাদি সরকার ধারা প্রদান করা হয়। 

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স চাকরির অসুবিধা

যদিও বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স চাকরির বিশেষ অসুবিধা নেই। কিন্ত সকল চাকরির ক্ষেত্রে যে সমস্যা গুলো এখানেও তা দেখা যায়। বাংলাদেশে চাকরির প্রধান অসুবিধায় হচ্ছে সুযোগ কম। অনেক যোগ্য ব্যক্তিও চাকরির সুযোগ পায় না। 

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স চাকরির সুবিধা

সাধারন এই অসুবিধা গুলো ছাড়াও নির্দিষ্ট কিছু অসুবিধা রয়েছে। যদি যোগ্যতার বলে আপনি চাকরি পেয়েও যান।প্রশিক্ষনের সময় বিভিন্ন জায়গায় গিয়ে প্রশিক্ষন গ্রহনের মানসিক ট্রমা আপনার মস্তিস্ক সহ্য করতে নাও পারে। 

সেই সাথে বিমান বালা হিসাবে যদি আপনি চাকরিতে যোগ দেন। নিয়মিত বিমানে ভ্রমন আপনার জন্য মারাত্নক মানসিক ক্ষতির কারন হয়ে দাঁড়াতে পারে। এই সকল সাধারন সমস্যা ছাড়া বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স চাকরির অসুবিধা চোখে পড়ে না। 

একবার চাকরি পেয়ে গেলে এই সকল সমস্যা সমাধান করতে বেশি কষ্ট হওয়ার কথা না। 

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স চাকরির বেতন

অন্যান্য সরকারি প্রতিষ্ঠানের মতো বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স চাকরির বেতন বিভিন্ন রকম। যেহেতু বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স একটি রাষ্ট্রীয় সংস্থা, তাই এটি পরিচালনা করতে নানান ধরনের, যোগ্যতার করমচারী প্রয়োজন। 

পদমর্যাদার ভিত্তিতে এখানে বেতন কম এবং বেশি হয়ে থাকে। যেমন

পদবীবিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স চাকরির বেতন
পরিচালক ১৯,৩০০-২২,১০০ টাকা
সহকারী পরিচালক১৬,৮০০- ২০,৭০০ টাকা
সিনিয়র সিস্টেম এনালিস্ট১৫,০০০- ১৯,৮০০ টাকা
সিস্টেম এনালিস্ট১৩,৭০০-১৯,২৫০ টাকা

আগেই বলা হয়েছে এখানে অন্যান্য চাকরির মতোই পদোন্নদিতর সুযোগ রয়েছে। এবং পদোন্নদির সাথে সাথেই মাসিক বেতন এবং অন্যান্য ভাতার পরিমান বাড়তে থাকবে। 

যদি আকাশ পথে যাত্রীদের নিরাপদে একস্থান থেকে অন্যথায় পৌঁছে দেওয়ার মহান দায়িত্ব কাঁধে নিতে চান তাহলে এই ক্ষেত্র শুধু আপনার জন্যই। আর সকল যাত্রীদের নিরপত্তার এই গুরুত্ব পূর্ণ দায়িত্ব পাওয়াই হলো বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স চাকরির প্রধান সুবিধা।

Leave a Comment