Game খেলে টাকা আয়:গেম খেলে টাকা আয় বিকাশ App 2022

Game খেলে টাকা আয়:গেম খেলে টাকা আয় বিকাশ App 2022

আমরা অনেকেই অনলাইন এ গেম খেলতে বেশ পছন্দ করি। কেমন হবে যদি আপনার পছন্দের গেম খেলে টাকা আয় করা যায়! এবং বিকাশ এ পেমেন্ট নেওয়া যায় কোন ঝামেলা ছারাই।

কিছু ক্ষণ আগেই একটা গেম খেলে মোটামুটি ভালো পেমেন্ট পেলাম। সেই অভিজ্ঞতাই শেয়ার করতে যাচ্ছি আপনিও কিভাবে 2022 এর সম্পূর্ণ নতুন উপায় এ গেম খেলে বিকাশ এ আয় করতে পারবেন।

চলুন দেখে নেওয়া যাক আজকের সহজ কিছু স্টেপ-

গেম খেলে টাকা আয়  App বিকাশ পেমেন্ট

গেম খেলে টাকা আয় বর্তমানে একটি ট্রেন্ডিং টপিক। গুগল বা ইউটিউব এ গেম খেলে টাকা আয় app বা অনলাইনে গেম খেলে টাকা আয় লিখে সার্চ করলে অনেক গেম খেলে টাকা আয় app এবং গেম খেলে টাকা আয় এর উপায় পাওয়া যায়।

কিন্তু বেশির ভাগ তথ্যই ভুয়া বা অকেক পুরনো। তাই  সত্যিকারের গেম খেকে টাকা আয় App বিকাশ পেমেন্ট পেতে আমাদের এই পদ্ধতি গুলো ফলো করুন।

আজকে মুলত ২ ধরনের গেম খেলে টাকা ইনকাম করার উপায় নিয়ে আলোচনা করবো-

  1. গেম খেলে টাকা আয় চিরস্থায়ী উপায়।
  2. গেম খেলে সাথে সাথে বিকাশ এ পেমেন্ট নেওয়ার উপায়।

গেম খেলে টাকা আয় করার চিরস্থায়ী উপায়

এক সময় গেম খেলা শুধু বিনোদন এর অন্তরভুক্ত ছিল। বর্তমানে অনলাইন গেম সবচেয়ে সম্ভাবোনা ময় ইন্ডাস্ট্রী। অনলাইন এ গেম খেলে এখন সুন্দর ক্যারিয়ার গড়ে তোলা সম্ভব এবং লাখ এর উদাহরণ সারা দুনিয়ায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে।

আপনি নিজেও মোবাইলে গেম খেলে টাকা আয় করে নিজের ক্যরিয়ার গড়ে তুলতে পারেন। যেসব কারনে গেমার ক্যারিয়ার এ ভবিষ্যৎ ঝলমলে তা হলো-

  1. কোন সারটিফিকেট বা শিক্ষাগত বাধা নেই।
  2. বয়স এর কোন বাধা নেই।
  3. শুধু একটি মোবাইল ফোন থাকলেই হয়।

ছোট একটা চাকরি নিতে গেলেও শিক্ষাগত যোগ্যতা থাকলেও চাকরি কপাল এ জোটে না। কিন্তু অনলাইন গেম খেলে ক্যারিয়ার গড়তে আপনার বয়স, শিক্ষা বা আর্থিক সমস্যা কোন কিছুই বাধা তৈরি করতে পারে না।  গেম খেলে ক্যারিয়ার গড়তে আপনার যে দুটি জিনিস প্রয়োজন তা হচ্ছে –

  1. ইচ্ছা শক্তি
  2. ধৈর্য

প্রবল ইচ্ছা শক্তি আর ধৈর্য আপনার গেমিং ক্যারিয়ার এর সাথে সাথে আপনাকে সোশ্যাল মিডিয়া সেলিব্রেটি বানিয়ে দিবে।

গেম খেলে সাথে সাথে বিকাশ এ পেমেন্ট নেওয়ার উপায়

আপনি চাইলে সরাসরি গেম খেলে টাকা বিকাশ এ নিতে পারেন এর জন্য আপনাকে বেশি অপেক্ষা করতে হবে না। এখানে আপনার জন্য বেশ কিছু অনলাইন গেম App এর কথা বলা হয়েছে যা আপনাকে ভালো পরিমান টাকা আয় করতে সাহায্য করবে।

গেম খেলে সাথে সাথে বিকাশ এ পেমেন্ট নেওয়ার সুবিধা অসুবিধা

অসুবিধা-

আসলে এখানে তেমন কোন অসুবিধা বা খারাপ দিক নেই। আপনি যদি গেম খেলে কিছু টাকা সরাসরি আয় করতে পারেন সেটা আসলেই অনেক ভালো।

তবে এই ধরনের আরনিং এপ এ অনেক কাজ করা বা অনেল সময় দিলেও সে তুলনায় অনেক কম টাকা পাওয়া যায়। যে সময় এইখানে ব্যয় করবেন সে সময় কোন স্কিল তৈরিতে লাগালে আপনার ভবিষ্যৎ উজ্জল হবে।

সুবিধা-


আপনি যদি ছাত্র বা কোন চাকরি না করে থাকেন তাহলে অনলাইনে গেম খেলে টাকা আয় করে আপনার হাত খরচ চালাতে পারেন । এতে আপনার কনফিডেন্স অনেক বেড়ে যাবে, ভালো কিছু করতে আগ্রহ পাবেন।

বাংলাদেশ থেকে কোন কোন গেম খেলে টাকা আয় করা যায় 

বাংলাদেশ থেকে অনেক গেম খেলেই টাকা আয় করা যায়। আপনি যদি নিজেকে গেমার হিসাবে পরিচয় দিতে চান তাহলে একটা গেম এ আটকে না থেকে বিভিন্ন গেম ট্রাই করতে পারেন। 

 অনলাইন এ গেম খেলে টাকা আয় এর ক্ষেত্রে একটি বিষয় খেয়াল রাখতে হয় সেটা হচ্ছে ট্রেন্ড ফলো করা। (আর আপনি যদি চান ট্রেন্ড আপনাকে ফলো করুক, তাহলে তো আপনি বস!) 

বর্তমান সময় এর ট্রেন্ডিং গেম হচ্ছে ফ্রি ফায়ার, পাব জি, কল অফ ডিউটি ইত্যাদি। এসব গেম এর মাধ্যমে লাখ বেকার এখন সেলিব্রেটি। এ ছাডাও লুডু খেলে টাকা আয় বিকাশে, ক্রিকেট গেম খেলে টাকা আয়, জাভা গেম খেলে টাকা আয় করা যায়। টাকা গেম গুলো সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হবে আজকে।

গেম খেলে সাথে সাথে বিকাশ এ পেমেন্ট

গেম খেলে টাকা আয় বিকাশে 2021 apps বা 2022 এর অনেক উপায় রয়েছে যেমন জাভা গেম খেলে টাকা আয়, ফ্রি লটারী খেলে টাকা ইনকাম, ক্রিকেট গেম খেলে টাকা আয়,লুডু খেলে টাকা আয় বিকাশ,গেম খেলে টাকা আয় app

 ইত্যাদি। এসব এপ এর মাধ্যমে খুব সহজেই ভালো পরিমান টাকা আয় করা যায় ডেইলি কিছু ক্ষণ ব্যবহারের মাধ্যমে।

লুডু খেলে টাকা আয় বিকাশে

গেম খেলে সাথে সাথে বিকাশ এ পেমেন্ট

লুডু খেলা, গেম খেলে টাকা আয় এর অন্যতম একটি মাধ্যম। আপনি হয়ত শুনে থাকবেন আপনার বন্ধু বা পরিচিত কেও লুডু খেলে প্রচুর টাকা ইনকাম করছে। কিভাবে লুডু খেলে আপনি টাকা আয় করবেন?

লুডু খেলে টাকা আয় এর উপায়

লুডু খেলে অনলাইন এবং অনলাইন দুই ভাবেই টাকা আয় করা যায়। অফলাইন এ খেলে টাকা আয় এর মাধ্যম হচ্ছে বন্ধু বা পরিচিতদের সাথে বাজী খেলে টাকা আয় করা যায় (মনে রাখবেন বাজী সম্পূরন হারাম) ।

অনলাইন এ বেশ কিছু উপায় রয়েছে যেমন Winmts Ludo (Earning App)। এটি লুডু খেলে টাকা আয় এর একটি বিশস্ত মাধ্যম। যদিও এটি একটি ইন্ডিয়ান এপ, আপনি নিশ্চিন্তে কাজ করতে পারেন কেননা অনেক দিন থেকেই পেমেন্ট করে আসছে।

 Winmts Ludo থেকে টাকা আয়

 Winmts Ludo থেকে টাকা আয় এর জন্য তাদের অফিশিয়াল সাইট থেকে  Winmts Ludo এপ ডাউনলোড করে সাইন আপ করে ফেলুন। এর পর আপনি টাকা আয় শুরু করে দিতে পারবেন।

 Winmts Ludo তে সাইন আপ করার পর আপনি বিভিন্ন টুরনামেন্ট খেলার সুযোগ পাবেন । তাছাডাও আপনার বন্ধুদের রেফার করে অনেক টাকা আয় করতে পারেন।

যেহেতু ইন্ডিয়ান এপ তাই পেমেন্ট নেওয়ার জন্য পেপাল ব্যবহার করতে পারেন। আপানার যদি পেপাল একাউন্ট না থাকে থাহলে দেখে নিন কীভাবে পেপাল একাউন্ট খুলতে হয়।

  Winmts Ludo ছাডাও লুডু খেলে টাকা আয় এর আরও কিছু জনপ্রিয় App রয়েছে যেমন-

  • Ludo Fantasy
  • Khiladi Adda
  • Ludo Lounge

লুডু খেলে কত টাকা আয় করা যায়

 আপনি হয়ত জানেন লুডু খেলে হাজার হাজার টাকা আয় করা সম্ভব না। আপনি যদি নিয়মিত লুডু গেম খেলেন তাহলে ডেইলি ৩০০ থেকে ৪০০ টাকা এবং মাসিক ৯ হাজার থেক ১২,০০০ টাকা আয় করতে পারেন। এছাডা যদি বেশি বেশি রেফার করতে পারেন তবে আপনার ইনকাম বেডে যাবে।

লুডু থেকে কিভাবে বেশি টাকা আয় করা যায়

আপনি যদি লুডু গেম থেকে আরও বেশি টাকা আয় করতে চান তাহলে নিচের স্টেপ গুলো ফলো করুন-

  • প্রথমত লুডু গেমের ভালো স্কিল ডেভেলপ করুন।
  • প্রমশনাল এপ বা কোন টাস্ক আসলে তা পুরন করুন।
  • ডেইলি মিশন সম্পূর্ণ করুন।
  • টুরনামেন্ট এ অংশনিন।
  • এ ছাডাও একাধিক এপ ইন্সটল করে খেলতে পারেন।

তিন পাত্তি গেম খেলে টাকা আয় বিকাশে

তিন পাত্তি গেম খেলে টাকা আয় বিকাশে

Teen Patti একটি Online Game যেটির মাধ্যমে টাকা আয় করা যায়। টিন পাত্তি একটি অনলাইন কার্ড গেম যেটি ফ্লাশ নামেও পরিচিত। চলুন দেখে নেওয়া যাক কীভাবে টিনা পাত্তি খেলে টাকা আয় করা যায়।

টিন পাত্তি (Teen Patti) কীভাবে খেলবেন?

টিন পাত্তি খেলার জন্য মোবাইল এ App Install করতে হবে। App এ Sign UP করে গেম খেলা শুরু করতে হবে । আপনি চাইলে ফেসবুক দিয়ে সাইন আপ করতে পারেন অথবা As a Guest খেলতে পারেন।

এটি যেহেতু কার্ড গেম এবং আন্তর্জাতিক প্লেয়ারদের সাথে খেলবেন তাহলে বুঝতেই পারছেন কি পরিমান এক্সপার্ট হতে হবে। আপনি যদি ভালো খেলতে না পারেন তবে সাজেস্ট করবো আগে অভিজ্ঞতা অর্জন করুন। টিন পাত্তি গেম খেলে টাকা আয় করার জন্য আপনাকে অবশ্যয় প্রতিপক্ষকে হারাতে হবে।

টিন পাত্তি গেম থেকে টাকা আয়

টিন পাত্তি গেম এ ভালো স্কিল থাকলে বিভিন্ন ভাবে টাকা আয় করতে পারবেন যেমন-

  1. কোর বিক্রি করে টাকা আয়
  2. সরাসরি বাজী খেলে টাকা আয়
  3. টুর্নামেন্ট খেলে টাকা আয়
  4. লোকাল গেম খেলে টাকা আয়

কোর বিক্রি করে টাকা আয়

তিন পাত্তি গেম খেলে টাকা আয় এর অন্যতম মাধ্যম হচ্ছে কোর বিক্রি করে টাকা আয় করা। টিন পাত্তি গেম খেলে জিততে পারলে যে পয়েন্ট পাওয়া যায় সেগুলা কে কোর কনভার্ট করা যায়। এবং প্রতিটা কোর ১৫-২০ টাকা করে বিক্রি করে বিকাশ এ টাকা আয় করা যায়।

সরাসরি বাজী খেলে টাকা আয়

যেহেতু টিন পাত্তি কার্ড গেম এইখানে সরাসরি বাজী এর সুবিধা থাকবে না এমন হতেই পারে না। টিন পাত্তি তে আপনি ইন্টারন্যশনাল প্লেয়ার দের সাথে সরাসরি বাজী খেলে টাকা আয় করতে পারেন।

টুনামেন্ট ও লোকাল গেম খেলে টাকা আয়

গেম এ ভালো অভিজ্ঞতা থাকলে ফ্যান্টাসি টুরনামেন্ট এ জয়েন করে টাকা আয় করতে পারেন। আগ্রহী বন্ধু বা প্রতিবেশিদের সাথে গেম খেলেও টাকা আয় করতে পারেন। প্রধান বিষয় হচ্ছে গেম এ স্কিল থাকলে টাকার অভাব হবে না।

টিন পাত্তি গেম প্লে স্টোর এ Available আছে । মনে রাখবেন এটি জুয়া এবং জুয়া সম্পূর্ণই হারাম।

টিন পাত্তি খেলা শিখে নিন!

ফ্রি লটারী খেলে টাকা ইনকাম

ফ্রি লটারী খেলে অনলাইন এ  ভালো পরিমান টাকা আয় করা যায়। শুধু ফ্রি লটারী সাইট গুলোতে গিয়ে তাদের ইন্ট্রাকশান ফলো করতে হবে।

মনে রাখবেন ফ্রি লটারী সাইট গুলো বেশির ভাগ এ স্ক্যাম হয়ে থাকে। একটি বিষয় খেয়াল রাখতে হবে ফ্রি লটারী সাইট এ যত লোভনীয় হোক টাকা না দেওয়ার জন্যই অনোরুধ করবো। ফ্রি হলেও খেয়াল রাখবেন আপনার গুরু্বপূর্ণ তথ্য যেন তাদের হাতে না পরে। 

আবার সব লটারী সাইট স্ক্যাম হয় না। কিছু কিছু ফ্রি সাইট এর সাথে থাকলে ২০ থেকে ২৫ হাজার টাকা আয় করা যায়।

 ক্রিকেট গেম খেলে টাকা আয়

আপনি যদি ক্রিকেট খেলার ফ্যান হয়ে থাকেন তবে আপনার জন্য সুসংবাদ। অনলাইন এ ক্রিকেট গেম খেলে বিশার অঙ্কের টাকা আয় এর সযোগ রয়েছে। চলুন দেখে নেই কিভাবে ক্রিকেট গেম খেলে টাকা আয় করা যায়।

ক্রিকেট গেম খেলে টাকা আয় এর উপায়

ক্রিকেট গেম খেলে টাকা আয় তুলামূলক ভাবে অনেক সহজ। বলে রাখি রিয়েল আরনিং এপ প্লে স্টোরে পাওয়া যায় না (প্লেস্টোর পলিছি এর বিরোদ্ধে)। তাই ক্রিকেট গেম খেলে টাকা আয় এর জন্য অফিশিয়াল সাইট থেকে এপ ডাউনলোড করে সাইন আপ করতে হবে।

সাইন আপ করার পর সিংগেল প্লেয়ার বা মাল্টি প্লেয়ার সিলেক্ট করে গেম খেলা শুরু করে দিবেন।

ক্রিকেট গেম খেলে টাকা আয় এর সেরা এপ

এখানে আমি কোন এপ এর নাম নিচ্ছিনা কারন ক্রিকেট গেমিং এপ গুলো মাঝে মাঝেই উধাও হয়ে যায়। আমি আজকে যদি কোন এপ রিভউ করি এবং ৬ মাস পরে আপনি যখন পোস্টটি পড়ছেন গেমটি খুজে পাবেন না স্বাভাবিক।

ক্রিকেট গেম খেলে টাকা আয় এর সেরা এপ খুজে পেতে গুগলে Real cricket earning App  লিখে সার্চ করে এপ এর রিভিউ পড়ুন। যেটার ভিতরে পজিটিভ রিভিউ বেশি সেটি ডাউনলোড করে খেলা শুরু করে দিন।

জাভা গেম খেলে টাকা আয়

অনেকেই হয়ত জানেই না জাভা গেম কী! যারা জানেন না তাদের উদ্দেশ্যে বলছি জাভা হচ্ছে এন্ড্রয়েড এবং আ ই ও এস এর দাদা ভাই। এন্ড্রয়েড এবং আ ই ও এস আসার আগে জাভা বেশ জনপ্রিয় ছিল।

মূলত বাটন মোবাইল এ এন্ড্রয়েড এবং আ ই ও এস এর মত জাভা স্টোর থেকে জাভা এপ ইন্সটল করা যায়।

যেহেতু জাভা প্রায় বিলুপ্ত হয়ে গেছে এবং বর্তমান সময় এর ছেলে মেয়েরা এ সম্পরকে খুব কম জানে। এমন কি যারা জানে তারাও ব্যবহার করে না।

আপনি যদি বুদ্ধি করে জাভা গেমিং ভিডিও করে ইউটিউব এ আপলোড করেন তবে সফলতার সব্বোচ্চ সম্ভাবনা রয়েছে। কীভাবে ইউটিউব এ আপলোড করে টাকা আয় করা যায় এই সম্পর্কে নিচে আলোচনা করা হয়েছে।

গেম খেলে টাকা আয়: চিরস্থায়ী উপায় সমূহ

গেম খেলে টাকা আয় এর চিরস্থাইয়ী উপায় নিয়ে উপরে সংক্ষিপ্ত আলোচনা করা হয়েছে। এখন বিস্তারিত জানবেন কিভাবে অনলাইন গেম খেলে ক্যারিয়ার তৈরি করা যায়। অনলাইনে গেম খেলে টাকা ইনকাম বিকাশ পেমেন্ট ২০২২ এর বেশ কিছু চির স্থায়ী উপায় রয়েছে যেমন-

  1. YouTube গেমিং ভিডিও তৈরি করে টাকা আয়।
  2. গেমিং ব্লগ লিখে টাকা আয়।
  3. ডায়মন্ড বা উসি (Dimond or UC) বিক্রি করে টাক আয়।
  4. Twich এ গেমিং ভিডিও আপোড করে টাকা আয়।

YouTube গেমিং ভিডিও তৈরি করে টাকা আয়

বর্তমান সময় এ গেম খেলে টাকা আয় করার সবচেয়ে সহজ মাধ্যম হচ্ছে ইউটিউব এ গেমিং ভিডিও তৈরি করা। গেমিং ভিডিও অনেক অনেক জনপ্রিয় দর্শক দের মাঝে। গেমিং ভিডিও তৈরি করার জন্য আপনার অন্যান্য ক্রিয়েটর দের মত অনেক রিসার্চ করতে হবে না বা স্টুডিও সেটাপ লাগবে না। জাস্ট পছন্দের অনলাইন গেম খেলবেন এবং স্ক্রিন রেকর্ড করে ইউটিউব এ আপলোড করবেন।

 ইউটিউব এ গেম খেলে টাকা আয় এর কিছু টিপস

এখানে এমন কিছু বিষয় আলোচনা করা হবে যা আপ্নাকে সেলিব্রেটি বানিয়ে দিতে পারে। ভালো কিছু পাওয়ার জন্য সময় ধৈর্য আর অভিজ্ঞতা সবকিছুর মিশ্রন প্রয়োজন। এমন অনেক গেমার বা স্ট্রিমার ইউটিউব এ রয়েছে যারা দৈনিক ২০ থেকে ৩০ হাজার ইঙ্কাম করছে সেটাও আবার বাংলাদেশ থেকে।

আপনাকে শুধু ধৈর্য ধরে কাজ করতে হবে।

কীভাবে ইউটিউব এ পলুলার গেমার হওয়া যায়?

 গেমিং ইউটিউবার কয়েক ধরনের আছে যেমন-

  1. লাইভ স্ট্রিমার
  2. গেমিং প্রব্লেম সল্ভার
  3. কমেডি গেমিং
  4. গেমিং শর্টস

লাইভ স্ট্রিমার

যারা গেম খেলার ভিডিও সরাসরি ইউটিউব এ আপ্লোড করে তাদের লাইভ স্ট্রিমার বলে। লাইভ স্ট্রিমিং বেশ জনপ্রিয়। এই ধরনের ভিডিও তৈরি করাও সহজ। এমন অনেক এন্ড্রয়েড এপ রয়েছে যেগুলোর মাধ্যমে  মোবাইল দিয়েই লাইভ স্ট্রিমিং করা যায়। লাইভ ভিডিও গুলো কয়েক ঘন্টার হয়ে থাকে। মোবাইল দিয়ে লাইভ স্ট্রিম করার এপ

প্রব্লেম সল্ভার

গেমিং প্রব্লেম সল্ভারা গেমিং টেক নামেও পরিচিত। এদের কাজ হচ্ছে যেকোন অনলাইন গেম এর মধ্যে গেমার’রা যেসব সমস্যায় পরে তা সমাধান করে ভিডিও বানানো। আপনি যদি সমস্যা সমাধান এ পটু হয়ে থাকেন তাহলে এই ধরনের চ্যানেল খুলে কাজ শুরু করতে পারেন। এমন ভিডিও মোবাইল দিয়ে তৈরি করতে পারবেন। এজন্য  আপনাকে মোবাইল এ ইউটিউব ভিডিও এডিট সম্পর্কে সামান্য ধারনা থাকতে হবে।

গেমিং কমেডি

 এতে মূলত গেম প্লে এর সাথে ফানি ভয়েস বা ফানি ইফেক্ট যুক্ত করা হয়। গেমিং কমেডি ভিউয়ার রা খুবই পছন্দ করেন। কমেডি ভিডিও গুলো ৫ থেকে ১০ মিনিট এর হয়ে থাকে। এ ভিডিও বানানোর জন্যও মোবাইল এ ইউটিউব ভিডিও এডিট এর ধারনা থাকা জরুরি।

গেমিং শর্টস

গেমিং শর্টস ভিডিও সবচেয়ে সহজ উপায় ইউটিব এ পপুলার হওয়ার। এসব ভিডিও ১ মিনিট এর কম আয়তন এর হয়। টিকটক ভিডিও এর মত। অনেক ক্ষেত্রে নিজের ভিডিও করেও হয় না, ইউটিউব বা অন্য কোথা থেকে নিয়ে আপ্লোড করলেও সমস্যা হয় না। 

তবে নিজে ভিডিও করে আপ্লোড করাই ভালো। যদি প্রতিদিন ১০ -১৫ টি করে শর্ট ভিডিও আপ্লোড করতে পারেন তবে ১ মাস এর মধ্যেই কয়েক হাজার সাবস্ক্রাইবার অরজন করা সম্ভব। একবার যদি ভিডিও তে ভিউস আসা শুরু করে তবে অগনিত রাস্তায় টাকা আয় করা সম্ভব।

About YT Shorts.

ইউটিউব এ ভিডিও করতে কী কী লাগবে

ধৈর্য আর ইচ্ছার সাথে আপনার আরো কিছু জিনিসের প্রয়জন হবে ইউটিউব ভিডিও করতে। যেমন-

  • মোটা মুটি একটা মোবাইল
  • ইন্টারনেট কানেকশন (MB)
  • গেমিং স্কিল 
  • বেসিক ভিডিও এডিটিং স্কিল

আপনি যখন এতদুর আমার কেখা পড়ছেন আমি মোটামুটি নিশ্চিত আপনার কাছে একটি মোবাইল, ইন্টারনেট কানেকশন এবং গেমিং এ ভালো স্কিল আছে। বাকি থাকে শুধু ভিডিও এডিটিং। এটা নিয়ে চিন্তা করার কিছু নেই আপনার ভাই আছে আপনার সাথে। মোবাইল এ ভিডিও এডিটিং নিয়ে স্টেপ বা স্টেপ গাইড করাবো।

এখন আপনাকে পছন্দের গেম খেলে ভিডিও করে আপ্লোড করতে হবে। গেম খেলার সময় অবশ্যি স্ক্রিন রেকর্ড চালু রাখবেন। খেলা শেষ হলে হালকা এডিট এর পর আপ্লোড করে দিলেই কাজ শেষ।

গেম লাইভ স্ট্রিমিং করে আয় করুন

গেম লাইভ স্ট্রিমিং করে আয় করুন

লাইভ স্ট্রিমিং এর কথা উপরেও বলা হয়েছে, কিন্তু এখনে প্রফেশনাল স্ট্রিমিং এর কথা বলছি। ইন্টারনেটে এমন কিছু প্লাটফর্ম রয়েছে যেগুলোতে শুধু গেম স্ট্রিমিং করা হয়। আপনি চাইলে শুরু করতে পারেন। আপনি যদি স্ট্রিমিং করতে চান তাহলে একই সময় এ  একই ভিডিও বিভিন্ন প্লাটফর্মে শেয়ার করার সুযোগ ও রয়েছে।

আপনি যদি নিয়মিত স্ট্রিমিং করতে থাকেন তাহলে সুপার চ্যাট, মনিটাইজেশান এমন কি স্পন্সর এর মাধ্যমে লাখ লাখ টাকা আয় করতে পারেন।

গেম লাইভ স্ট্রিমিং প্লাটফর্মস

গেম লাইভ স্ট্রিমিং করার জন্য অনেক প্লাটফর্ম রয়েছে তবে সবচেয়ে জনপ্রিয় হচ্ছে Twitch,Nimo & YT Gaming. 

লাইভ স্ট্রিমিং করে টাকা আয় করার জন্য আপনাকে প্রতিদিন নিয়মিত লাইভ এ আসতে হবে । আপনার খেলা দেখে বা যেভাবে হোক ভিসিটর যখন আপনার গেম প্লে পছন্দ করবে এবং আপনার লাইভ দেখবে তখন আপনি পেমেন্ট পাবেন। 

বিভিন্ন প্লাটফমের  পেমেন্ট সিস্টেম বিভিন্ন রকম। তবে একটি বিষয় সব যায়গাতেই এক তা হচ্ছে অডিয়েন্স গেইন করা। অডিয়েন্স যদি আপনার গেম প্লে পছন্দ করে তবে আপনি অবশ্যই পেমেন্ট পাবেন।

গেম খেলে ফেসবুক থেকে টাকা আয়

আপনি হয়ত জানেন’ই না যে যেই ফেসবুকে দিনের অধিকাংশ সময় নষ্ট করছেন সেই ফেসবুক থেকে গেম খেলে হাজার হাজার টাকা আয় করতে পারেন।

ফেসবুক কিছুদিন আগে ফেসবুক গেমিং নামে তাদের গেমিং প্লাটফর্ম লঞ্চ করেছে। শুধু একটা ফেসবুক গেমিং পেইজ আর ফেসবুক গেমিং এপ ডাউনলোড করে গেমিং শুরু করে দিন।

ফেসবুক আপনার টাকা নিয়ে ভাগবে না আর পুরো প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ ফ্রি! আপনি যদি গেমিং করে ভিউয়ারস কালেক্ট করতে পারেন তবে গেমিং টুরনামেন্ট খেলার ও সুযোগ পেতে পারেন।

Read More: Best 7 Crypto Advertising Network 2022

গেমিং ব্লগ থেকে টাকা আয়

আপনার যদি ভিডিও কনটেন্ট তৈরির সুযোগ না থাকে তাহলে ব্লগিং বা লিখা লিখি শুরু কতে পারেন। গেমিং বিভিন্ন টপিক, সমস্যা ইত্যাদি নিয়ে লিখতে পারেন। এছাড়াও নতুন কোন গেম আসলে সেটা রিভিও করতে পারেন, কিভাবে খেলতে হয় গাইড করে ব্লগ লিখতে হয়।

গেমিং ব্লগ থেকে কীভাবে টাকা আয় হয়

গেমিং বা যেকোন ব্লগ থেকে টাকা আয় এর জন্য হাজার হাজার উপায় রয়েছে। এমন অনেক সাইট রয়েছে যেগুলো থেকে আয় করার জন্য কোন এপ্রুভাল এর দরকার হয় না। এছাড়া গুগলের এডসেন্স তো আছেই। শুধু ভিসিটর আসতে হবে।

গেমিং ব্লগ এ ভিসিটর কিভাবে আনবো

ভাই ব্লগ এ ভিসিটর আনার জন্যেও অনেক উপায় রয়েছে। তবে সবচেয়ে লাভজনক উপায় হচ্ছে এস ই ও করা। এস ই ও কিভাবে করে সেটা একটা আলাদা টপিক। ব্লগ এস ই ও কিভাবে করতে হয় এখানে আলোচনা করা হয়েছে।

গেমিং ব্লগ লিখে ২০০ ডলার আয়

GamingFAQs  নামে একটি সাইট এ গেমিং গাইড লিখে ২০০ ডলার আয় করতে পারেন। বিভিন্ন সাইট যেমন মিডিয়াম বা জনপ্রিয় গেমিং ফোরাম এমনকি পত্রিকায় গেমিং সম্পরকে লেখা লেখি করে আয় করতে পারেন।

গেমিং টুরনামেন্ট খেলে টাকা আয়

সকল জনপ্রিইয় গেম যেমন ফ্রি ফায়ার, পাবজি ক্ল্যাশ অফ ক্ল্যান্স ইত্যাদি গেম নিয়মিত টুরনামেন্ট এত আয়জন করে। মাঝে মাঝে প্লেয়ার রাও টুরনামেন্ট এর আয়োজন করে থাকে।

অফিশিয়াল টুরনামেন্ট-গুলোতে কয়েক মিলিয়ন ডলার এর প্রাইজ পোল রাখা হয়। ভালো গেমার যারা তারা টুরনামেন্ট এ খেলার সুযোগ পায়। একবার একটি টুর্নামেন্ট জিততে পারলে তার জীবন পুরোপুরি বদলে যায়।

শেষ কথা 

গেম খেলে টাকা আয় app,মোবাইলে গেম খেলে টাকা আয়, টাকা গেম ইত্যাদি এর ব্যাপার এ বিস্তারিত আলোচনা করার চেষ্টা করেছি। যদি নতুন কিছু শিখে থাকেন তাহলে মেইল এ সাবস্ক্রাইব করুন এমন ইন্টারেস্টিং তথ্য সবার আগে পাওয়ার জন্য। 

আপনি যদি কোন টপিক সাজেস্ট করতে চান তাহলে কমেন্ট এ করতে পারেন। ধন্যবাদ।

Read More-

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*